২৮শে অক্টোবর, ২০২০ ইং | ১২ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ | ভোর ৫:১২

হেয় করতেই এ মামলা: নূর

ঢাকা অফিস (কৃষি কণ্ঠ অনলাইন সংস্করণ) ।। ‘অহেতুক হয়রানি করার জন্যই আমার বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে। আর যে শিক্ষার্থী বাদী হয়ে মামলা করেছেন তার সঙ্গে জীবনে আমার একবার মাত্র কথা হয়েছে। এ থেকে বোঝা যাচ্ছে কারা, কি কারণে মামলাটি করেছে।’

সোমবার (২১ সেপ্টেম্বর) বিকেলে এ কথাই বলেন ভিপি নূরুল হক নূর।

নূর আরও বলেন, ‘ওই শিক্ষার্থীকে দিয়ে গোয়েন্দা সংস্থা কিংবা একটি স্বার্থান্বেষী মহল আমার বিরুদ্ধে উদ্দেশ্যমূলকভাবে মামলাটি করেছে। তাদের উদ্দেশ্যে একটাই, যে কোনোভাবেই হোক আমাকে হেয় প্রতিপন্ন এবং দমিয়ে রাখা। তা না হলে যার সঙ্গে আমি জীবনে একবার কথা বলেছি, তাকে কীভাবে ধর্ষণ বা ধর্ষণে সহযোগিতা করা হলো? এটা সহজেই বোধগম্য। একই সঙ্গে যারা এ ধরনের কাজের সঙ্গে জড়িত নিরপেক্ষ তদন্তের মাধ্যমে তাদের দ্রুত বের করে সমাজের সামনে উন্মুক্ত করার জোর দাবি জানাচ্ছি।’

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের (ডাকসু) এই নেতা আরও বলেন, ‘ওই শিক্ষার্থীকে আমি কেনো ধর্ষণ করতে যাব? তার সঙ্গে আমার দেখা-সাক্ষাৎ বা কথা বার্তাও হয় না। মূলত আমি একটি রাজনৈতিক প্লাটফর্ম তৈরি করার চেষ্টা করছি। সেই রাজনৈতিক প্রচেষ্টা যেনো সফলভাবে করতে না পারি সেজন্যই আমি এবং আমার সহযোগী অন্যদের অহেতুক মিথ্যা মামলায় হয়রানি করা হয়েছে। যা আইনানুগভাবে মোকাবেলা করা হবে।’

এর আগে রোববার (২০ সেপ্টেম্বর) রাতে লালবাগ থানায় নূরসহ ছয় জনকে আসামি করে মামলা করেন ওই শিক্ষার্থী।

উল্লেখ্য, ২০১৮ সালে কোটা সংরক্ষণ নিয়ে দেশব্যাপী ছাত্ররা সোচ্চার হয়। তখন সাধারণ ছাত্র পরিষদের ব্যানারে আন্দোলনের নেতৃত্ব দেন নুরুল হক নুর। এরপর ২০১৯ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ নির্বাচনে তিনি ভিপি নির্বাচিত হন। কিন্তু ভিপি হওয়ার পর থেকেই বিভিন্ন সময় হামলা-মামলার শিকার হয়ে আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে আছেন তিনি। রাজধানী ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে তার ওপর একাধিকবার হামলা হয়।

( সম্পাদনায়:অনলাইন নিউজরুম এডিটর )

%d bloggers like this: