২৮শে নভেম্বর, ২০২০ ইং | ১৩ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ | রাত ৪:৫৩

করোনার র‌্যাপিড টেস্ট এবার নতুন কৌশলে

স্বাস্থ্য ও চিকিৎসা ডেস্ক (কৃষি কণ্ঠ অনলাইন সংস্করণ) ।। কোভিড-১৯ রোগের জন্য পরীক্ষামূলক একটি ডায়াগনস্টিক টেস্ট ডেভেলপ করেছেন ইউনিভার্সিটি অব মেরিল্যান্ড স্কুল অব মেডিসিনের (ইউএমএসওএম) বিজ্ঞানীরা। এই টেস্ট ১০ মিনিটের মধ্যে ভাইরাসটির উপস্থিতি ভিজ্যুয়ালি শনাক্ত করতে পারে।

ভাইরাসের উপস্থিতি থাকলে রঙ পরিবর্তন শনাক্তে এই র‌্যাপিড টেস্টে প্লাজমোনিক গোল্ড ন্যানোপার্টিকেলস ব্যবহার করা হয়েছে। এই টেস্টের জন্য উন্নত ল্যাবের প্রয়োজন পড়ে না। গবেষকরা তাদের গবেষণাপত্রটি আমেরিকান কেমিক্যাল সোসাইটির ন্যানো টেকনোলজি বিষয়ক জার্নাল ‘এসিএস ন্যানো’-তে প্রকাশ করেছেন।

গবেষকরা জানান, ‘প্রাথমিক ফলাফলের ভিত্তিতে আমরা বিশ্বাস করি, আশাপ্রদ নতুন এই টেস্ট সংক্রমণের প্রথম দিন থেকেই ভাইরাস থেকে আরএনএ উপাদান শনাক্ত করতে পারে। তবে বিষয়টি নিশ্চিতের জন্য আরো গবেষণার প্রয়োজন রয়েছে।’

গবেষণা প্রকল্পটির প্রধান গবেষক ইউএমএসওএমের ডায়াগনস্টিক রেডিওলজি অ্যান্ড নিউক্লিয়ার মেডিসিন অ্যান্ড পেডিয়াট্রিক বিভাগের অধ্যাপক দীপাঞ্জন প্যান বলেন, কোনো রোগীর কাছ থেকে নাকের সোয়াব বা লালার নমুনা পাওয়া পর খুব সহজ একটি প্রক্রিয়ার মাধ্যমে নমুনা থেকে আরএনএ আলাদা করে ফেলা হয়। প্রক্রিয়াটি মাত্র ১০ মিনিট সময় নেয়। এই টেস্টের মাধ্যমে ভাইরাসের নির্দিষ্ট প্রোটিন শনাক্তে গোল্ড ন্যানোপার্টিকেলের সঙ্গে নির্দিষ্ট একটি অণু ব্যবহার করা হয়েছে। ভাইরাস শনাক্ত হলে গোল্ড ন্যানোপার্টিকেলগুলো তরল রিজেন্টকে বেগুনি থেকে নীল রঙে পরিবর্তন করে।

নতুন উদ্ভাবিত এই র‌্যাপিড টেস্টের অনুমোদন পাওয়ার জন্য আগামী মাসে মার্কিন ফুড অ্যান্ড ড্রাগ অ্যাডমিনিস্ট্রেশনের (এফডিএ) সঙ্গে বৈঠক করবেন ডা. প্যান। তাঁর মতে, করোনা মহামারি প্রতিরোধের কার্যকর ভ্যাকসিন না পাওয়া পর্যন্ত সহজ, সাশ্রয়ী ও দ্রুত পরীক্ষা পদ্ধতিগুলো ব্যবহার করা যেতে পারে। ভাইরাস শনাক্তকরণের ক্ষেত্রে আরএনএভিত্তিক নতুন এই টেস্ট খুব আশাব্যঞ্জক কিছু হতে পারে বলে মনে করেন তিনি।

( সম্পাদনায়:অনলাইন নিউজরুম এডিটর )

%d bloggers like this: