২২শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ ইং | ৭ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ | সকাল ১০:৪৪

করোনার ভ্যাকসিনের উপর নির্ভর করছে টোকিও অলিম্পিক

স্পোর্টস ডেস্ক (কৃষি কণ্ঠ অনলাইন সংস্করণ) ।। আধুনিক অলিম্পিক যুগে প্রথমবারের মতো পিছিয়ে গেলো অলিম্পিক গেমস। কারণ বিশ্বজুড়ে আঘাত হানা প্রাণঘাতী মহামারি করোনাভাইরাস। ফলে ৫৬ বছরের মধ্যে দ্বিতীয়বারের মতো গ্রীষ্মকালীন অলিম্পিক আয়োজনের সুযোগ পেয়েও এখনো আলোর মুখ দেখছে না জাপান।

ইতিমধ্যে আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটি (আইওসি) ও টোকিও অলিম্পিক আয়োজকরা চলতি সপ্তাহেই একটি বোর্ড মিটিং করে। যেখানে জানানো হয়, চলতি বছরের টোকিও অলিম্পিক আগামী বছর হলেও জাপানেই হবে। তবে আগামী বছর অলিম্পিক আয়োজন নিয়েও বিশেষ আশার আলো দেখছেন না তারা। আইওসি কর্মকর্তা জন কোটস বলেছেন, ‘পরিস্থিতির পরিবর্তন ঘটলেও করোনায় অলিম্পিক যথেষ্ট প্রভাবিত হওয়ার শঙ্কা থেকেই যাচ্ছে।’

সেই শঙ্কা আরও বাড়িয়ে দিলেন এডিনবরা বিশ্ববিদ্যালয়ের গ্লোবাল হেলথ বিভাগিয় প্রধান দেবী শ্রীধর। জানিয়েছেন, করোনার ভ্যাকসিন আবিষ্কার না হলে আগামী বছরও অলিম্পিক আয়োজন করা সম্ভব হবে না। বিবিসির একটি রিপোর্টে এমনটাই দাবি করা হয়েছে।

দেবী শ্রীধর বলেন, ‘যথাযথ ভ্যাকসিন আবিষ্কারের উপরেই নির্ভর করছে আগামী বছর অলিম্পিকের আয়োজনের বিষয়টি। বিজ্ঞানীরা জানাচ্ছেন, খুব শিগগিরই করোনার ভ্যাকসিন চলে আসবে। তবে আমার মনে হয় না এক বা দেড় বছরের আগে কিছু হবে। আগামী বছর যথাসময়ের মধ্যে ভ্যাকসিন চলে এলে কোনও সমস্যা নেই। ওটাই হবে গেম চেঞ্জার।’

গ্লোবাল হেলথ বিভাগের প্রধান দেবী শ্রীধর বেশি ভাবছেন, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার নির্দেশ মেনে গেমসে অ্যাথলেটদের স্বাস্থ্যপরীক্ষা ও দর্শক সমাবেশ নিয়ে। এছাড়াও ভ্যাকসিনটি মানুষের সহজলভ্য হবে কি না, সেটাও একটি বিষয় বলে মনে করছেন শ্রীধর।

তবে টোকিও অলিম্পিক আয়োজক কমিটির প্রধান ইয়োশিরো মোরি জানিয়েছেন, এবারের অলিম্পিক গেমস বাতিল হওয়ার পর করোনা মোকাবিলার জন্য তারা নতুন করে একটি টাস্কফোর্স গঠন করেছে। মোরির আশা, এই টাস্কফোর্স পরের বছর অলিম্পিকের আয়োজনের পথ মসৃণ করবে।

তিনি বলেন, ‘অলিম্পিক আয়োজনের জন্য গত ৫-৬ বছর ধরে আমরা নিরলস পরিশ্রম করেছি। আরও একটা বছর আমরা আমাদের চেষ্টা চালিয়ে যাবো একটা সফল অলিম্পিক আয়োজনের জন্য।’

এদিকে করোনার ভয়াবহতা থেকে এখনও মুক্ত নয় অলিম্পিকের আয়োজক দেশ জাপান। করোনা প্রতিরোধে সে দেশে আগামী ৬ মে পর্যন্ত জরুরি অবস্থা জারি করা হয়েছে।

%d bloggers like this: