৫ই জুলাই, ২০২০ ইং | ২১শে আষাঢ়, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ | রাত ২:৫০

কুষ্টিয়ার ভেড়ামারায় প্রায় ৩ লক্ষ নকল আকিজ বিড়ি জব্দ করেছে ডিবি পুলিশ

ভেড়ামারা উপজেলা প্রতিনিধি (কৃষি কণ্ঠ অনলাইন সংস্করণ)।। নিয়মিত অভিযানেও নিয়ন্ত্রনে আনা যাচ্ছে না নকল বিড়ির ব্যবহার।একদিকে যেমন রাজস্ব হারাচ্ছে সরকার তেমনি অন্য দিকে নকল বিড়ির কারনে আর্থিক ক্ষতির সম্মুখীন হচ্ছে বিড়ি কারখানাগুলো। নানাবিধ বৈষম্যের পাশাপাশি অবৈধ নকল বিড়ির কারনে নাকাল অবস্থায় কুষ্টিয়ার বিড়ি শিল্পে জড়িত সংশ্লিষ্ঠরা।

১৯ই জুন দুপুর দুইটার দিকে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে, কুষ্টিয়ার ভেড়ামারা উপজেলার ১২ মাইল বিআরটিসি কাউন্টারের সামনে থেকেথেকে ৭টি কার্টুন এবং ৫টি প্লাস্টিকের বস্তায় ৬লক্ষ নকল আকিজ বিড়িসহ তিনজনকে আটক করে কুষ্টিয়া জেলা গোয়েন্দা পুলিশ। যার বাজার মুল্য প্রায় সাড়ে ৩ লক্ষ টাকা। আটকৃতারা হলেন ১.মাহাবুব হাসান / পিতা: ওসমান গনি , ২ .মতিউর রহমান / পিতা; ইমাম হোসেন ,৩ . পলাতক আসামী রকি / পিতা: ফেরদাউস ।

জেলায় অবস্থিত প্রায় ২০টি বিড়ি কারখানায় উৎপাদিত পন্যের উপর প্রায় লক্ষাধিক মানুষের জীবিকা নির্বাহের পাশাপাশি সরকারও এখাত থেকে আয় করে জাতীয় রাজস্বের একটা বড় অংশ । কিন্তু সাম্প্রতিক কিছু অসাধু চক্রের তৎপরতায় বাজারে সয়লাব নকল বিড়ি। তাই ৬ লক্ষাধিক নকল জব্দকৃত বিড়ি বাজারজাত হলে সংশ্লিষ্ঠ প্রতিষ্ঠানের ৩ লক্ষাধিক টাকা আর্থিক ক্ষতির পাশাপাশি প্রায় লক্ষাধিক টাকার রাজস্ব হারাতো সরকার ।

বিড়ির দাম বাড়ায় নামে বেনামে বিড়ি ছোট খাট বিড়ি কোম্পানি তৈরি হচ্ছে আর রাজস্ব হারাচ্ছে সরকার। তাই বিড়ি সংশ্লিষ্টরা এনবিআর এবং অর্থমন্ত্রী প্রতি আহ্বান জানান বিড়ির উপর রাজস্ব কমানোর পাশাপাশি এ ধরনের নকল প্রতিষ্ঠান ও উৎপাদন বন্ধে স্থানীয় প্রশাসনের প্রতি বিশেষ নির্দেশনার অনুরোধ তাদের।

( সম্পাদনায়:অনলাইন নিউজরুম এডিটর )

%d bloggers like this: