২৩শে অক্টোবর, ২০২০ ইং | ৭ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ | সকাল ৮:০৪

আগামী মাসেই বাজারে ভারতে বানানো প্রথম করোনার টিকা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক (কৃষি কণ্ঠ অনলাইন সংস্করণ) ।। ভারতে বানানো প্রথম করোনাভাইরাসের টিকা ১৫ আগস্টের মধ্যেই বাজারে আসতে পারে। স্বাধীনতা দিবসের মধ্যেই টিকা ব্যবহার উপযোগী করে তুলতে দ্রুত কাজ করছে ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অব মেডিক্যাল রিসার্চ (আইসিএমআর)। ভারত বায়োটেক ইন্টারন্যাশনাল লিমিটেডের (বিবিআইএল) সহযোগিতায় তারা বাজারে আনতে যাচ্ছে ‘কোভ্যাকসিন’ নামের এই টিকা।

কোভিড-১৯ ভ্যাকসিনের (বিবিভি১৫২ কোভিড ভ্যাকসিন) ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালের (মানুষের দেহে প্রয়োগ) জন্য ১২টি প্রতিষ্ঠানকে বেছে নেওয়ার কথা জানিয়েছে সরকারের শীর্ষ চিকিৎসা গবেষণা সংগঠন। ‘অগ্রাধিকারমূলক প্রকল্প’ হিসেবে আইসিএমআর এই প্রতিষ্ঠানগুলোকে অতিসত্ত্বর পদক্ষেপ নিতে বলেছে।

বাছাই করা প্রতিষ্ঠানগুলোর কাছে পাঠানো চিঠিতে আইসিএমআর লিখেছে, ‘টিকা তৈরির জন্য সার্স-কোভ-২ এর স্ট্রেইন সংগ্রহ করা হয়েছিল আইসিএমআরের অধীনে থাকা পুনের জাতীয় ভাইরোলোজি ইনস্টিটিউট থেকে। এই টিকার ক্লিনিক্যাল ও প্রি ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালের জন্য আইসিএমআর ও বিবিআইএল যৌথভাবে কাজ করছে।’

জনস্বাস্থ্যের ব্যবহার উপযোগী করে তুলে স্বাধীনতা দিবসের মধ্যে টিকা বাজারে আনার পরিকল্পনার কথা জানালো আইসিএমআর, ‘সব ধরনের ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল শেষে ২০২০ সালের ১৫ আগস্টের মধ্যে জনস্বাস্থ্যের ব্যবহারের জন্য এই টিকা বাজারে আনতে চাই আমরা।’

ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালের জন্য বিশাখাপত্তনম, রোহতক, নয়াদিল্লি, পাটনা, বেলগাঁও (কর্নাটক), নাগপুর, গোরখপুর, কাট্টানকুলাথুর (তামিলনাড়ু), হায়দরাবাদ, আর্য নগর, কানপুর (উত্তর প্রদেশ) ও গোয়ার প্রতিষ্ঠানগুলোকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।

সারা বিশ্বে ১ কোটির বেশি মানুষকে আক্রান্ত করা ও ৫ লাখের বেশি জীবন কেড়ে নেওয়া প্রাণঘাতী ভাইরাস নির্মূলে টিকা আবিষ্কারের জন্য আপ্রাণ চেষ্টা করছেন বিজ্ঞানীরা। এখন পর্যন্ত কোনও টিকার খোঁজ মেলেনি। তবে এক ডজনের বেশি সম্ভাব্য টিকার পরীক্ষামূলক প্রয়োগ শুরু হওয়ার পথে।

( সম্পাদনায়:অনলাইন নিউজরুম এডিটর )

%d bloggers like this: